ADs by Techtunes tAds
ADs by Techtunes tAds

আসলে ফারাকটা কোথায়?

টিউন বিভাগ নির্বাচিত
প্রকাশিত
জোসস করেছেন

আমরা অনেকেই মনে করে থাকি যে ফ্রী সফটওয়্যার মানে ওপেনসোর্স সফটওয়্যার (অন্তত আমিও কিছুদিন আগে এমনটাই মনে করতাম)। এইরকম আরো কতগুলো জিনিস আছে যে সমস্ত ব্যাপারে আমাদের এক্সপার্ট'স এক্সপ্লানেশান ও ফেল মারে। আমি আগে শুনতে শুনতে এক পর্যায়ে বিশ্বাস ও করে ফেলেছিলাম যে লিনাক্স একটি পুরোপুরি ফ্রী অপেরাটিং সিস্টেম। আশাকরিয়েছি তা আজ আপনাদের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করব

ADs by Techtunes tAds

ফ্রিওয়্যার :

ফ্রিওয়্যার সফটওয়্যার গুলো সাধারনত আপনি বিনামুল্যে ব্যবহার করতে পারেন। কোন কোন প্রোপ্রাইটারি সফটওয়্যারও ফ্রিওয়্যার হিসেবে থাকতে পারে। ফ্রিওয়্যারগুলো সাধারনত কোন কোম্পানীর এমপ্লয়ীদের অথবা স্টুডেন্ট কম্যুনিটির সাহায্যার্থে ব্যবহার করতে দেয়া হয়ে থাকে। কিন্ত কোম্পানী তার বিজনেস পটেনশিয়াল অক্ষুন্য রাখার জন্য সফটওয়্যারের কোড কাউকে দেয়না। ফ্রিওয়্যারগুলো শেয়ারওয়্যার থেকে আলাদা। শেয়ারওয়্যারগুলো সাধারনত মার্কেটিং পারপাসে ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এগুলো আমরা ইন্টারনেট থেকে ডাউনলোড করতে পারি এবং কোমপানীর নির্ধারিত সময় পর্যন্ত ব্যবহার করতে পারি। ভ্যালিডিটি এক্সপায়ার হওয়ার পরেও ব্যবহার করতে চাইলে আমাদের গাটের পয়সা খরচ করতে হয়। ফ্রিওয়্যারগুলো পুরোপুরি কপিরাইটেড এবং শেয়ারওয়্যারগুলো কমার্শিয়ালি কপি রাইটেড কিন্তু শেয়ারওয়্যার এ আপনাকে আগে ব্যবহার করার অনুমতি দেয়া যেতে পারে এবং আপনাকে পয়সা তখনই খরচ করতে হবে যখন আপনি এর সমস্ত ফিচারগুলোকে কাজে লাগাতে চাইবেন। তখনই আপনাকে রেজিস্টার্ড ভার্সন কিনতে হয়।

ফ্রী সফটওয়্যার :

এগুলো আপনি কোন প্রকার বাধা ছাড়াই ব্যবহার এবং ডেভলাপ করতে পারবেন। এটি আপনি আপনি আপনার ইচ্ছামত কপি করে বিলিও করতে পারবেন। একটি সফটওয়্যারকে তখনই ফ্রী সফটওয়্যার বলা হবে যখন কোন এন্ড ইউজার সফটওয়্যারের সাথে সাথে হিউম্যান রিডেবল প্রোগ্রাম (সোর্স কোড) এর সাথে পেয়ে থাকে।

ফ্রী সফটওয়্যার ফাউন্ডেশান (FSF) মতে -

  • ১. প্রোগ্রামটি যেকান পারপাসে ব্যবহার করা যাবে।
  • ২. প্রোগ্রামটি কিভাবে কাজ করবে সে ব্যাপারে আপনি স্টাডি করতে পারবেন এবং চাইলে আপনার মত করে পরিবর্ধন ও পরিমার্জন করতে পরবেন।
  • ৩. PASS IT ON অর্থাৎ ডেভলাপ করার পর আপনি আপনার বন্ধুকেও ব্যবহার করার জন্যে দিতে পারেন।
  • ৪. আপনার ইম্প্রুভমেন্টের পর চাইলে আপনি কোন কমিটিতেও তা পাবলিশ করতে পারেন যাতে পুরো কম্যুনিটির কল্যানে ব্যবহৃত হতে পারে।

ওপেনসোর্স :

ওপেনসোর্স হল যেখানে কপিরাইটের আওতায় সফটওয়্যার এবং তার সোর্স কোড আমরা পেতে পারি।

নিচের কিছু ডেফিনেশানে ওপেনসোর্স ব্যাপারটা আরো একটু ক্লিয়ার হবে -

  • ১. রিডিস্ট্রিবিউশন : এই সফটওয়্যারগুলো কেউ চাইলে স্বাধীনভাবে ব্যবহার, প্রসার এবং বিক্রি ও করতে পারে।
  • ২. ডিস্ট্রিবিউশনের সাথে সাথে সবসময় আপনাকে সোর্স কোড ও সরবরাহ করতে হবে।
  • ৩. আপনি চাইলে আপনি সোর্স কোডের যে মডিফিকেশন ঘটিয়েছেন তা ও সরবরাহ করতে পারেন। এটা পাস করাটাই ভালো কারন আপনি যতটুকু এগিয়ে দিয়েছেন অন্য কেউ সেখান থেকে কাজ করা আরাম্ভ করলে হয়ত আরো একটু আগানো সম্ভব হবে।
  • ৪. আপনার ডেভেলাপ করা কোড পরবর্তীজনের কাছে প্যাচ হিসেবে পাস করা হবে।
  • ৫. কমার্শিয়ালরা এর সাথে জড়িত থাকতে পারবেন না।
  • ৬. সফটওয়্যার এবং কোডের সাথে সাথে আপনার মূল লাইসেন্স ও পাস করতে হবে।
  • ৭. লাইসেন্স অবশ্যই টেকনোলজি নিউট্রাল হতে হবে।

আমি যতদূর পেরেছি ব্যাপারটা পরিস্কার করে তুলে ধরার চেস্টা করেছি। কোন তথ্য যদি মিস করে থাকি তাহলে টিউনার বন্ধুরা টিউমেন্টের মাধ্যমে সেগুলো পুরো করে দেবেন বলে আশা করছি।

ধন্যবাদ

ADs by Techtunes tAds
Level 0

আমি দুঃসাহসী টিনটিন। বিশ্বের সর্ববৃহৎ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির সৌশল নেটওয়ার্ক - টেকটিউনস এ আমি 10 বছর 7 মাস যাবৎ যুক্ত আছি। টেকটিউনস আমি এ পর্যন্ত 200 টি টিউন ও 1543 টি টিউমেন্ট করেছি। টেকটিউনসে আমার 10 ফলোয়ার আছে এবং আমি টেকটিউনসে 0 টিউনারকে ফলো করি।

মানুষ হিসেবে তেমন আহামরি কেউ নই আমি। সাটামাটা জীবনটাই বেশী ভালো লাগে। আবার মাঝে মাঝে একটু আউলা হতে মন চায়। ভালো লাগে নিজেকে টিনটিন ভাবতে .... তার মত দুঃসাহসী হতে মন চায় ..... কিন্তু ব্যক্তি জীবনে অনেকটা ভীতুই বটে ..... অনেক কিছুই হাতছাড়া হয়ে গেছে জীবনে এই কারনে ..... আবার...


আরও টিউনস


টিউনারের আরও টিউনস


টিউমেন্টস

হ্যাঁ ব্যপারটা নিয়ে আমারও কন্ফিউসন ছিল। এখন কিছুটা পরিষ্কার। কিন্তু একটা বিষয় হল ফ্রিওয়্যার গুলো টাকা পয়সা আয় করে কীভাবে?
আমার একই অবস্থা
যারা ফারাকটা জানতেন না তাদের জন্য আসলেই একটি প্রয়োজনীয় টিউন। আপনাকে ধন্যবাদ।
আমি একবার একজনকে বলেছিলাম লিনাক্স ফ্রি। তিনি আমাকে বলেছিলেন ফ্রি মানে কি এটা দোকানে গেলে টাকা ছাড়াই দিয়ে দেবে? আপনার এই লেখা টি তাদের জন্যই দরকার।
ভালো লিখেছেন। আমি অবশ্য ফ্রি সফটওয়্যার আর ওপেনসোর্সকে কখনও এক মনে করিনি। তবে ফ্রি সফটওয়্যার এবং ফ্রিওয়্যারের পার্থক্যটা অনেকদিন পর্যন্ত আমার জানা ছিল না।
ওপেনসোর্স আর ফ্রিওয়্যারকে আমিও একই জিনিসের ভিন্ন নাম ভাবতাম। ভুল ভাবনা দূর করতে সহায়তা করার জন্য ধন্যবাদ। শফিউল সাহেবের মত আমারও একই প্রশ্ন, ফ্রিওয়্যারগুলোর বেনিফিট কোথায়?